1. bdfocas24@gmail.com : newsroom :
  2. arifahok27@gmail.com : Alifa hok : Alifa hok
  3. newsgopalpur@gmail.com : Rokon zzaman : Rokon zzaman
  4. akmpalash75@gmail.com : Shamsuzzoha Palash : Shamsuzzoha Palash
ভাবী পা ধরে আর ভাই গলা টিপে হত্যা করে কৃষক রিপনকে - www.bdfocas24.com
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৯:৫৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
পেগাসাস আছে বলে মানুষ রাতে নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারে : ইজরায়েলি সংস্থা NSO নেশাগ্রস্থ সন্তানের হাতে মা খুন : র‍্যাব ১৩’র হাতে হত্যাকারী মাদকাসক্ত ছেলে গ্রেফতার দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা বাজারে সরকারি খাস জমিতে অবৈধভাবে দোকানঘর নির্মাণ : ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান দামুড়হুদায় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা ও স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ দামুড়হুদায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৬ টি মামলায় ২৮ জনকে অর্থদন্ড নরসিংদী জেলা যুবলীগের নেতৃত্বে কলকাতার মিথুন সাহা ! সেনাবাহিনীর সহযোগীতায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে ভিজিএফ এর চাল বিতরন করলেন পৌর মেয়র বিপ্লব নোয়াখালীর হাতিয়ায় হত্যাসহ ২৪ মামলার আসামি গ্রেফতার সেন্ট্রাল অক্সিজেন সিস্টেম, আইসিইউ, পিসিআর ল্যাব স্থাপনের দাবিতে গাইবান্ধায় নাগরিক মঞ্চের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত করোনা : রোগীদের চিকিৎসা দিতে যেয়ে নিজেই আক্রান্ত হলেন, ডাঃ শুভ

ভাবী পা ধরে আর ভাই গলা টিপে হত্যা করে কৃষক রিপনকে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঝিনাইদহঃ
  • আপডেট টাইম: শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১২৭ বার দেখা

গত ৯ ডিসেম্বর রাতে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিল কৃষক রিপন। রাত ১২ টার দিকে ভাই ও ভাবী ঘরে ঢোকে। এক পর্যায়ে ঘুমন্ত অবস্থায় ভাবী ফরিদা বেগম রিপনের পা ধরে আর বড় ভাই নান্নু গলা টিপে হত্যা করে।

পরে পেটে দা দিয়ে কোপ দেয়। পুলিশের নজর এড়াতে ধান পাহারা দিতে গেছে এমন গল্প ফেঁদে তার চাদর ও মোবাইল বাড়ি থেকে দুরের একটি মাঠে ফেলে আসে।

ভোরের দিকে বাড়ির পাশের ডোবায় মাটিচাপা দেয়। সম্পত্তির কারণেই এ হত্যাকান্ড বলে স্বীকার করেছে আটক ভাবি ফরিদা বেগম।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ঝিনাইদহের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ কামরুজ্জামানের আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে তার ভাবী ফরিদা বেগম।

ঝিনাইদহের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শৈলকুপা সার্কেল) আরিফুল ইসলাম জানান, গত ৯ ডিসেম্বর শৈলকুপা উপজেলার চর রূপদাহ গ্রামের মৃত আব্দুল বারিক বিশ্বাসের ছেলে রিপন হোসেন (২৮) বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। এ ব্যাপারে তার স্ত্রী সোহাগি বেগম পরের দিন শৈলকুপা থানাতে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

এরপর থেকেই রিপকে উদ্ধারে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। পরে গত ১৬ ডিসেম্বর বাড়ির পাশের ডোবায় তার পুতে রাখা লাশের হাত দেখতে পেয়ে পুলিশের খবর দেয় এলাকাবাসী। পরে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় সন্দেহজনক ভাবে ওই দিনই ভাবী ফরিদা বেগমকে আটক করে। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে ভাই নান্নু।

২ দিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ফরিদা বেগম হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী দেয়।

প্রতিবেশিরা জানায়, কৃষক রিপন দীর্ঘদিন মালেশিয়া ছিল। বড় ভাই ময়মনসিংহ চাকুরী করে। এই সুবাদে পরিবারের সকল সম্পত্তি নান্নু ভোগ দখল করে আসছিল। ২ বছর আগে রিপন বাড়িতে এসে জমি নিয়ে চাষাবাদ শুরু করে। সম্পত্তি নিয়ে পরিবারে ঝামেলা চলে আসছিল। যে কারণেই হত্যা করা হলো কৃষক রিপনকে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত |গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।

সাইট ডিজাইন এস.এম.সাগর-01867-010788