1. bdfocas24@gmail.com : newsroom :
  2. arifahok27@gmail.com : Alifa hok : Alifa hok
  3. newsgopalpur@gmail.com : Rokon zzaman : Rokon zzaman
  4. akmpalash75@gmail.com : Shamsuzzoha Palash : Shamsuzzoha Palash
মেহেরপুরে ২য় স্ত্রী জরিনা হত্যা মামলায় স্বামী ও সতীনের মৃত্যুদন্ডাদেশ - www.bdfocas24.com
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চুয়াডাঙ্গায় একদিনে ছয় ওসির রদবদল পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রিন্টুসহ ৬ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ পলাশবাড়ীতে সড়কের পাশে ড্রেন নির্মাণে বৈষম্যের স্বীকার হয়ে অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ী নিঃস্ব জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর সাথে সৌজন্যে সাক্ষাৎ করলেন মেহেরপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোমিনুল ইসলাম পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলামের নির্দেশে অচল বৃদ্ধের বয়স্ক ভাতার টাকা উদ্ধার পুলিশ সুপারের মধ্যস্থতায় অবুঝ শিশুকন্যা নুসরাত ফিরে পেলো তার বাবা-মাকে রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কারের জন্য তামাক কোম্পানিকে অযোগ্য ঘোষণা সাংবাদিক সোহেল রানা ডালিমের উপর সন্ত্রাসী হামলা, দর্শনা প্রেসক্লাবে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত মেহেরপুর বারাদীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত পরিমণি : চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত

মেহেরপুরে ২য় স্ত্রী জরিনা হত্যা মামলায় স্বামী ও সতীনের মৃত্যুদন্ডাদেশ

মেহেরপুর প্রতিনিধি:
  • আপডেট টাইম: সোমবার, ৪ জানুয়ারি, ২০২১
  • ১০০ বার দেখা
ফাইল ছবি

মেহেরপুরে জরিনা খাতুন নামে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী তার প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত সোমবার বেলা ১১টার দিকে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা জজ রিপতি কুমার বিশ্বাস রায় ঘোষণা করেন

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলেন- সদর উপজেলার যাদবপুর গ্রামের নবীছদ্দীনের ছেলে সাইদুল ইসলাম ও তার প্রথম স্ত্রী জমেলা খাতুন। আসামিরা আদালত থেকে জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছেন।

মামলা এজাহারে জানা গেছে, ২০১০ সালে সদর উপজেলার যাদবপুর গ্রামের সাইদুল ইসলাম ও তার প্রথম স্ত্রী জমেলা খাতুন দুজনে মিলে জরিনা খাতুনকে হত্যার পর একটি লাশ আলুক্ষেতে পুতে রাখে। কয়েকদিন পর পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ২০১০ সালের ৬ জানুয়ারি জরিনা খাতুনের বোন ফেরদৌসি খাতুন বাদি হয়ে ৫ জনের বিরুদ্ধে মেহেরপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সাইদুল ইসলাম ও তার প্রথম স্ত্রী জমেলা খাতুনকে আটকের পর আদালতে নেয়া হলে তারা ১৬৪ ধারায় দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন। ঘটনার সঙ্গে জড়িত না থাকায় তিনজনকে চার্জশিট থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। মামলায় ১৪ জন সাক্ষী আদালতের তাদের সাক্ষ্য প্রদান করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত |গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।

সাইট ডিজাইন এস.এম.সাগর-01867-010788